Header Border

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল) ২৮.৯৬°সে
শিরোনাম:

লক্ষ্মীপুরের দক্ষিন হামছাদীতে ভূমিহীনের জমির দিকে প্রবাসীর স্ত্রী লোলুপ দৃষ্টি দেওয়ার অভিযোগ

৫০ শতকের উপরে সম্পত্তি ও প্রায় ২৫০০ বর্গফুটের একতলা বাড়ী প্রবাসী মালিকের স্ত্রী ভূমিহীন হয়ে তার দালানের পাশে বসবাস করা ভূমিহীন কালামের সম্পত্তির প্রতি লোলুপ দৃষ্টি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত প্রবাসীর স্ত্রীর অবস্থান হচ্ছে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়নে।

সরে জমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, দক্ষিন হামছাদী ইউনিয়নের পূর্ব নন্দনপুর গ্রামের ৩নং ওয়ার্ড সরদির বাড়ীর দুই যুগ ধরে প্রবাসী ইসমাইল হোসেনের প্রায় ২৫০০ বর্গফুটের কমলা রং এর এক তলা বাড়ী রয়েছে। উক্ত দালানের পাশে আরেকটি টিনরে ঘর বাড়াও দিচ্ছে প্রবাসী ইসমাইলের স্ত্রী। ইসমাইলের প্রবাস জীবনে আয়ের অর্থসহ পারিবারিক ভাবে সে প্রয় ৫০ শতক ভূমির মালিক। তারপরেও ইসমাইলের দালানের পাশে সরকারী সম্পত্তিতে দীর্ঘ ৩০ বছর পূর্বে ডোবা নালা ভরাট করে বসতগৃহ তৈরি করে অবস্থান করা আবুল কালামের দখলি সম্পত্তির প্রতি নজর পড়েছে প্রবাসী ইসমাইলের স্ত্রী নুরুন নাহার নয়নের। তাই নুরুন নাহার নয়ন স্বামীর বিপুল সম্পত্তিকে গোপন করে পিতার পরিচয় উল্লেখ করে ভূমিহীন হতে তোড়াজোড়া শুরু করেছেন। ভূমিহীন হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারলে তার দালানের পাশে থাকা ১নং খাস খতিয়ানের সম্পত্তি দখলে নেওয়া যাবে বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে।

জানা যায়, পক্ষিন হামছাদী মৌজার ১ নং খাস খতিয়ানের ৫৪৬৯ দাগের ১৮ শতক সম্পত্তি দুই যুগ আগে ডোবা নালা ভরাট করে ঘর নির্মাণ করে ভূমিহীন আবুল কালামের স্ত্রী পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসতেছে। দুই বছর পূর্বে ভূমিধীন আবুল কালামের ভরাটকৃত জায়গা থেকে ৮ শতক ভূমি তৎকালিন জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল একটি সংখ্যালঘু পরিবারকে বরাদ্ধ দেয়। সংখ্যালঘু বরাদ্ধ দেওয়ার সময় ভূমিহীন আবুল কালামের জেলা প্রশাসন থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে যে, যেহেতু ১৮শতক ডোবা নালাকে ভরাট করে আবুল কালাম বাস উপযোগী করেছেন সেহেতু ১০ শতক ভূমি আবুল কালামের নামে বাদোবস্ত দেওয়া হবে। সে মোতাবেক সকল প্রশাসনিক কার্যক্রম সম্পন্ন হলে। আবুল কালাম থেমে যায় ফাইলের গতি থেমে যাওয়ার কারনে হিসাব জানা যায়, বন্দোবস্ত নথি নং ১০২/২১-২২ এর বিপরীত একটি আবেদন করে নুরুন নাহার নয়ন । উক্ত আবেদনে আবুল কালামের নদীতে উল্লেখ করা ১০ শতক সম্পত্তির মধ্যে ৫ শতক তার দখলে রয়েছে এবং এই ৫ শতক ভূমি ব্যতীত তার আর কোন জায়গা নেই মর্মে আবুল কালামের নথির কার্যক্রম স্থগিতের জন্য জেলা প্রশাসক নিকট আবেদন করে ২২/০৮/২০২২ তারিখে সরেজমিন পরিদর্শনে নুরুন নাহার দাবী করা খাস জমিতে বসত ঘর নির্মান করার দাবী অসত্যমান বলে প্রতিয়মান হয়। এছাড়া নুরুন নাহার দাবী করে উক্ত খাস জমি ছাড়া তার কোন ভূমি নেই, এটাও সত্য। দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়্যারম্যান মীর শাহআলম বলেন, পূর্ব নন্দনপুর গ্রামের প্রবাসী ইসমাইলের স্ত্রী নুরুন নুহুর নয়ন একটি ভূমিহীন সনদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদে আসলে বিষয়টি আমার নজরে আসে। আমার বাড়ী থেকে মাত্র ১০০ গজ দূরে তার দালান সমৃদ্ধ বাড়ী আবস্থিত। তার আর্থিক অবস্থা ও সম্পত্তির মালিকানা সম্পর্কে আমি অবগত। তাই ভূমিহীন ক্যাটাগরীতে নরুন নাহার নয়নের মত স্বচ্ছল লোক পড়তে পারে না বিধায় আমি ভূমিহীন সনদ দিই নাই। তাছাড়া তপসিলভুক্ত সম্পত্তির দীর্ঘ ২ যুগের বেশী ধরে ভূমিহীন আবুল কালাম ভোগ করে আসছে। নুর নাহার নয়ন ২২/০৮/২০২২ তারিখে সংবাদ সংগ্রহ এর সময় বাড়ীতে না থাকায়, তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয় নাই। নূর নাহার নয়ন আদো ভূমিহীন কিনা ? উক্ত তাপসীল সম্পত্তিতে তার দখল আছে কি না? তা সরজমিনে পরিদর্শনসহ অবিলম্বে বিষয়টি যথাযত তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ভূমিহীন আবুল কালামের পরিবার ও স্বজনরা জেলা প্রশাসনের নিকট দাবী জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন:

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

লক্ষ্মীপুরে বড় ভাইকে হত্যার দায়ে ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে লক্ষ্মীপুরে গৃহহীন ৭ পরিবারকে ঘর উপহার
মামলায় জড়িয়ে প্রবাসীকে ফাঁসানোর অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে
ইউপি সদস্য হত্যা মামলায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড
লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপারের সঙ্গে রামগঞ্জের সকল শ্রেনী-পেশার মানুষের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত
রায়পুরে সচেতনতা বাড়াতে লিফলেট বিতরণ করলেন ওসি

আরও খবর

সম্পাদক প্রকাশক: এ.কে.এম. মিজানুর রহমান মুকুল