News Headline :
লক্ষ্মীপুর-২ আসন‘ঈগলের এজেন্ট হলে ঘর জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি নৌকার কর্মীদের’ লক্ষ্মীপুর-২ নির্বাচনী কাজে সরকারি ‘স্বপ্নযাত্রা’ অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করায় ইউপি চেয়ারম্যানের জরিমানা   লক্ষ্মীপুর-৩ আসন ঋণ খেলাপির অভিযোগে সজিব গ্রুপের চেয়ারম্যান হাসেমের মনোনয়ন বাতিল লক্ষ্মীপুর-৪ আসনেও বিকল্পধারার মান্নানের মনোনয়নপএ বাতিল রামগঞ্জের চন্ডিপুর মনসা উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচন স্থগিত করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার লক্ষ্মীপুর-১ আসন  স্বতন্ত্র এমপি প্রার্থী পবনকে হত্যার হুমকি পৌর কাউন্সিলরের  চন্ডিপুর মনসা উচ্চ বিদ্যালয় পক্ষপাতমূলক আচরনের অভিযোগ ভূমিকম্পে কাঁপল দেশ, উৎপত্তিস্থল লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ রামগঞ্জে ডাকাতির প্রস্তুতি কালে অস্ত্রসহ আটক ২ রামগঞ্জে নৌকার প্রার্থী সহ মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন ০৮ জন
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনাকে অশেষ ধন্যবাদ

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনাকে অশেষ ধন্যবাদ

Mother of humanity খ্যাত জননেএী শেখ হাসিনা covid 19 টিকার মেধাসত্ত্ব উন্মক্ত করার জন্য জাতিসংঘে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের নিকট জোর দাবি জানান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উক্ত প্রস্তাব গৃহীত হলে আফ্রিকাসহ অনূন্যনত ও LDC ভুক্ত রাষ্ট্রগুলোর জনগণ করোণার ভায়াবহ থাবা থেকে বাঁচতে পারবে।

প্রধানমন্ত্রীর সাথে সুর মিলিয়ে একই বক্তব্য দিয়েছেন বিশ্বের স্বাস্থ্য সংস্থার DG মহোদয়। তারা উভয়ে বলেছেন সারা পৃথিবীতে মোট ছয়টি কোম্পানির হাতে সারা বিশ্বের মানুষ জিম্মী। তাই করোণার মেধাসত্ত্ব আইন বা পেটেন্ট উন্মুক্ত করে দিলে বাংলাদেশও করোণার টিকা উৎপাদন করতে পারবে এবং দেশের চাহিদা মিটিয়ে গরীব রাষ্ট্রগুলোকেও উপহার দিয়ে বিপুল জনগোষ্ঠীকে করোণার ভয়ালো থাবা থেকে বাঁচাতে পারবে।এবং বর্তমান বিশ্ব করোণা নিয়ে যে গভীর সংকটে নিপতিত তা অবশ্যই নিরসণ হবে।
কারণ বাংলাদেশ টিকা উৎপাদনের জন্য logistic support and skilled manpower আছে।কারণ বাংলাদেশের ড্রাগ বিশ্বের প্রায় ৬২ টি দেশে রপ্তানি করে।
শুধু বাংলাদেশের দরকার মেধাসত্ত্ব আইন উন্মুক্ত করা। পৃথিবীর ছোট্র দেশ কিউবা যদি নিজেরা করোণার টিকা উৎপাদন করে নিজেদের জনগণের চাহিদা মেটাতে পারে,তাহলে বাংলাদেশ কেন তা পারবে না। শুধু বাংলাদেশের দরকার করোণার টিকার ফরমুলা। তাহলে বাংলাদেশ তীর্থের কাকের মত ভারতে উৎপাদিত সিরাম ইন্সটিটিউটের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে না। এটা common sense এর ব্যাপার ভারত তার দেশের ১২০ কোটি নাগরিক কে করোণার টিকা না দিয়ে কখনো অন্য দেশে রপ্তানি করবে না। রপ্তানি করলেও আমাদের চাহিদার তুলনায় অতি নগণ্য মাএার টিকা আসবে। যে রকম আমারা চীন, জাপান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে উপহার স্বরুপ পেয়ে থাকি। আমাদের ১৭ কোটি জনগণ কে vaccination coverage এর আয়তায় আনতে হলে আমাদের অবশ্যই নিজ দেশে টিকা উৎপাদনের ব্যাবস্থা করতে হবে। ছোট্র দেশ কিউবা পারলে আমারা কেন পারবো না? ইরান যদি নিজ দেশে টিকা উৎপাদন করতে পারে,তাহলে আমারা কেন পারবো না। যদি আমাদের দেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া সর্বোচ্চ মাথাপিছু দেশের মর্যাদায় পৌঁছতে হয়, তাহলে বাংলাদেশে নিজস্ব logistic support and skilled manpower কে অবশ্যই কাজে লাগাতে হবে। অন্যথায় আমাদের কে এর চরম মূল্য দিতে হবে বলে সকলে দৃঢ় বিশ্বাস করে।
জাতির জনকের সুযোগ্য কণ্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনাকে জাতিসংঘের একটি ফোরামে তুলে ধরার জন্য আবারো আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়ে আমার লেখা আজকের মত ইতি টানলাম।
আল্লাহ হাফেজ।

আজিজুর রহমান আযম
সাংবাদিক ও কলামিস্ট
লক্ষীপর প্রেসক্লাব, সদর লক্ষীপুর
Email:azam.rahman69@gmail.com

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY Shipon tech bd