Header Border

ঢাকা, বুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল) ৩০.৯৬°সে
শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষে থেকে পুলিশ সুপারকে বিদায় সংবর্ধনা লক্ষ্মীপুরে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষে থেকে পুলিশ সুপারকে বিদায় সংবর্ধনা লক্ষ্মীপুরে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও আলোচনা সভা লক্ষ্মীপুরে সাংবাদিক রনির পিতার মৃত্যু লক্ষ্মীপুরে মাকে পিটিয়েছে পুত্র? বিচারে বকাবকি করায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার লক্ষ্মীপুরে পদায়ন হওয়া পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামানকে রংপুর রেঞ্জ থেকে বিদায় সংবর্ধনা লক্ষ্মীপুরে জুলাই মাসে শ্রেষ্ঠ ওসি রামগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর এমদাদুল হক দালাল বাজার আ’লীগের উদ্যোগ শোক দিবসে আলোচনা সভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল কমলনগরে শোক দিবসে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও কাঙ্গালি ভোজ অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে লক্ষ্মীপুরের রুপম

রায়পুরে ৪০ বছর ধরে পাঁচ গ্রামের মানুষের পারাপারে সাঁকোই একমাত্র ভরসা

লক্ষীপুরের রায়পুর উপজেলার চরমোহনা, দেবীপুর, শায়েস্তানগর, উত্তর রায়পুর, গাইয়ারচর ও আলোনিয়াসহ ৫টি গ্রামের উপর দিয়ে বয়ে গেছে ডাকাতিয়া নদী। নদীটি পারাপারের জন্য একটি সেতুর প্রয়োজন। কিন্তু ৩০ বছর ধরে ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা চেয়ারম্যান ও সংসদ সদস্যের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে বারবার গেলেও কেউ কর্ণপাত করেনি। এলাকার ডাকাতিয়া নদী পারাপারের একমাত্র অবলম্বন এ সাঁকো। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ৪০ বছর ধরে হাজার হাজার মানুষ বাঁশের এই সাঁকো দিয়ে নদী পার হচ্ছেন। বিশেষ করে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী, বৃদ্ধ ও শিশুদের সাঁকো দিয়ে পারাপার হতে চরম সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, রায়পুরে ডাকাতিয়া নদীর উপর প্রায় ১০০ মিটার দৈর্ঘ্য বাঁশের সাঁকেটি ৪০ বছর আগে এলাকাবাসী চাঁদা উত্তোলন করে তৈরি করেন। সে থেকে প্রতি বছরই সাঁকোটি সংস্কারের জন্য চাঁদা তুলতে হয়। এটি উপজেলার দেবীপুর গ্রামে ডাকাতিয়া নদীর উপর নির্মিত। প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষ ও ছাত্র-ছাত্রী পারাপার হচ্ছে। এতে মানুষের সময় যেমন নষ্ট হয় তেমনি চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। সংশ্লিষ্টদের বারবার বলেও কোনো লাভ হয়নি।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর লক্ষ্মীপুরের আওতায় ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে ব্রিজ নির্মাণের জন্য বাজেট হলেও পরিমাণ মতো বরাদ্দ না হওয়ায় ব্রিজটি আর নিমার্ণ হয়নি। এরপর আর আসেনি কোনো বরাদ্দ।

রায়পুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ছফিউল আযম সুমন চৌধুরী বলেন, ‘প্রতিদিন শতশত মানুষ ও শিক্ষার্থী নিজেদের প্রয়োজনে এই সাঁকোটি দিয়ে নদী পারাপার হচ্ছেন। আমি জনগুরুত্বপূর্ণ এই সাঁকোটির স্থলে একটি পাকা সেতু নির্মানের জন্য সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বারবার দাবি জানিয়ে এসেছি। এখন পর্যন্ত কোন ফল পাইনি।

রায়পুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিন চৌধুরী বলেন, ব্রিজ নির্মাণের জন্য বরাদ্দ চেয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত আবেদন করা হয়েছে। বরাদ্দ পেলেই জনগুরুত্বপূর্ণ ব্রিজটি নির্মাণ করা হবে।

শেয়ার করুন:

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

লক্ষ্মীপুরে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষে থেকে পুলিশ সুপারকে বিদায় সংবর্ধনা
লক্ষ্মীপুরে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষে থেকে পুলিশ সুপারকে বিদায় সংবর্ধনা
লক্ষ্মীপুরে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও আলোচনা সভা
লক্ষ্মীপুরে সাংবাদিক রনির পিতার মৃত্যু
লক্ষ্মীপুরে মাকে পিটিয়েছে পুত্র? বিচারে বকাবকি করায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার
লক্ষ্মীপুরে পদায়ন হওয়া পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামানকে রংপুর রেঞ্জ থেকে বিদায় সংবর্ধনা

আরও খবর

সম্পাদক প্রকাশক: এ.কে.এম. মিজানুর রহমান মুকুল